বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১২:২৪ অপরাহ্ন

চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে ভোটকেন্দ্রে সাংবাদিককে হেনস্তার অভিযোগ

জনশক্তি ডেক্স:
  • আপডেট সময়: বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪ ৩:৪১ pm

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে এক সাংবাদিককে হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে কাপ পিরিচ প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: ইসরাফিল হোসেনের দুই ভাই শামীম হোসেন ও বিপ্লব হোসেনের বিরুদ্ধে।

বুধবার (২৯ মে) দুপুর দুইটার দিকে উপজেলার দক্ষিণ উকিয়ারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী সাংবাদিক মো: সেলিম মিয়া জাতীয় দৈনিক কালবেলার মানিকগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।

জানা যায়, ভোটকেন্দ্রে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসরাফিল হোসেনের একজন কর্মী সাংবাদিক সেলিম মিয়ার দিকে তেড়ে আসেন। তার দেখাদেখি আরো কয়েকজন এগিয়ে সাংবাদিক সেলিম মিয়াকে ঘিরে ধরেন এবং হেনস্তা করেন। একপর্যায়ে হট্টগোল সৃষ্টি হলে ইসরাফিল হোসেনের দুই ভাই শামীম হোসেন ও বিপ্লব হোসেন এগিয়ে এসে ওই সাংবাদিকের সাথে অসদাচরণ করেন এবং ধাক্কিয়ে কেন্দ্র থেকে থেকে বের করে দেন। এসময় অন্যান্য সাংবাদিকরা এগিয়ে আসলে তাদের সাথেও অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন তারা।

এর আগে, দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ওই কেন্দ্রে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলেন মোটরসাকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী সুদেব সাহা। ভয়-ভীতি দেখিয়ে তার এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগও করেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিক সেলিম মিয়া বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসরাফিল হোসেনের দুই ভাই ও কয়েকজন নেতাকর্মী আমার পেশাগত দায়িত্ব পালনে বাধা সৃষ্টি করেন এবং আমাকে ধাক্কিয়ে কেন্দ্র থেকে বের করে দেন। এসময় নিজেদের কর্মী-সমর্থকদের ক্ষেপিয়ে তুলে মারধরের হুমকিও দেন তারা।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসরাফিল হোসেনের ভাই শামীম হোসেন বলেন, সকাল থেকেই সাংবাদিকরা এই কেন্দ্রে অবস্থান করছে এবং ভোটারদের ডিস্টার্ব করছে। আরো অনেক কেন্দ্রই তো আছে, তারা সেখানে যায়না কেন? তারা এখানে দীর্ঘক্ষণ থাকায় একটু হট্টগোল তৈরি হয়েছে। পাবলিক ক্ষেপে যাওয়ায় তাকে এখান থেকে চলে যেতে বলা হয়েছে।

এ ঘটনায় মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী বলেন, ভোটকেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগটি কিছুক্ষণ আগে পেয়েছি। ইতোমধ্যে সেখানে ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানো হয়েছে। আর সাংবাদিক হেনস্তার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ
© All rights reserved © janashokti

Developer Design Host BD