বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

দিন শেষে হেরে গেলেন মমতাজ, টুলু নির্বাচিত

জনশক্তি ডেক্স:
  • আপডেট সময়: সোমবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২৪ ১০:৩৮ am

জসিম উদ্দিন সরকার, মানিকগঞ্জ: অবশেষে হেরে গেলেন মানিকগঞ্জ-২ (সিংগাইর, হরিরামপুর উপজেলা ও হাটিপাড়া, ভাড়ারিয়া, পুটাইল ইউনিয়ন) আসনের এমপি, সিংগাইর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেশবরেণ্য কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম (নৌকা প্রতীক)। ৬ হাজার ১৭১ ভোটের ব্যবধানে তিনি মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কোষাদক্ষ স্বতন্ত্র প্রাথী (ট্রাক প্রতীক) দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলুর কাছে পরাজয় বরণ করেন।

রবিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোট গ্রহন শুরু হলেও কোথাও ভোটারদের তেমন উপস্থিতি লক্ষকরা যায়নি। বেলা বাড়ার সাথে সাথে উপস্থিতি কিছুটা বাড়তে থাকে, সারাদিন এভাবেই চলে ভোট গ্রহন। অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেতে দেখা যায়নি। সুন্দর সাভাবিক পরিবেশে বিকেল ৪টায় শেষ হয় ভোট গ্রহন।

হরিরামপুর উপজেলা ও মানিকগঞ্জ আংশিক তিনটি ইউনিয়নের ফলাফল চলে আসলেও সময় লেগে যায় সিংগাইর উপজেলার ফলাফল জানাতে। রাত ১১টার দিকে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পলাশ কুমার বসু সিংগাইর উপজেলার ফলাফল ঘোষণা করেন। এরপর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা মানিকগঞ্জ থেকে বেসরকারি ভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলুকে মানিকগঞ্জ-২ আসনে নির্বাচিত ঘোষণা করেন।

ভোটের ফলাফল আসতে শুরু হলে সবার হৃদয় কম্পন বাড়তে থাকে। মানিকগঞ্জ আংশিক তিনটি ইউনিয়নে ভোটের ব্যবধান তেমন না হলেও হরিরামপুর উপজেলায় ১১৮৫৩ ভোটে এগিয়ে থাকে নৌকা প্রতীকের মমতাজ বেগম, তবে ভাল ফলাফল পাননি নিজ ইউনিয়ন সিংগাইরে, ব্যবধানটা ছিল বিশাল। সিংগাইরে পিছিয়ে পড়েন ২০৭৫৪ ভোটে। সব মিলিয়ে মাত্র ৬ হাজার ১৭১ ভোটে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলুর কাছে পরাজিত হন মানিকগঞ্জ-২ আসনের ২ বারের নির্বাচিত এমপি ও একবারের সংরক্ষিত আসনের এমপি মমতাজ বেগম।

ঘোষিত ফল অনুযায়ী, মোট ১৯৩টি ভোটকেন্দ্রে ট্রাক প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলু পেয়েছেন ৮৮ হাজার ৩০৯ ভোট। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে মমতাজ বেগম পেয়েছেন ৮২ হাজার ১৩৮ ভোট।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে, সিঙ্গাইর-হরিরামপুর উপজেলা ও সদরের তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত মানিকগঞ্জ-২ সংসদীয় আসন। আসনটিতে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৯৮৯। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৩৪ হাজার ৮৭৩ জন ও নারী ভোটার ২ লাখ ৩২ হাজার ১১৩ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৩ জন। এই আসনে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১৯৩।

এই আসনে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের মমতাজ বেগম, স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান সফিউল আরেফিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মুশফিকুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাবুদ্দিন আহম্মেদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান জাহিদ আহম্মেদ, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের এ কে এম ইকবাল হোসেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির এম এ নাহিদ, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের তানভীর হাসান, বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশনের ফেরদৌস আহম্মেদ ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. জাকির হোসেন।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ
© All rights reserved © janashokti

Developer Design Host BD