শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩৫ অপরাহ্ন

প্রকৃতির ক্ষতি করবে এমন প্রকল্প হাতে নেব না : পরিকল্পনামন্ত্রী

জনশক্তি ডেক্স:
  • আপডেট সময়: সোমবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২৩ ৮:২৮ pm

পরিকল্পনামন্ত্রী এম. এ. মান্নান বলেছেন, প্রকৃতির ক্ষতি করবে এমন কোনো প্রকল্প জেনেশুনে আমরা হাতে নেব না। আমরা চরাঞ্চল ও উপকূলে সড়ক নির্মাণ করছি। হাওড় এলাকায় আর কোনো সড়ক নির্মাণ করা হবে না।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিআইজিডি) এবং বিশ্বব্যাংকের যৌথ উদ্যোগে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত ‘দ্য গ্লোবাল এনার্জি ট্রানজিশন অফার্স অ্যান অপরচুনিটি টু বুস্ট গ্রোথ ইন সাউথ এশিয়া’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, নতুন নতুন প্রকল্প আসছে, সেগুলো নারীবান্ধব, প্রকৃতিসহায়ক ও বাণিজ্যকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। সেই সঙ্গে জীবাশ্ম জ্বালানি, কয়লা, তেল ও গ্যাস থেকে ধীরে ধীরে সরে সূর্যের রশ্মি থেকে কীভাবে শক্তি সংগ্রহ করা যায় সেই চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, সবুজ উন্নয়নে বাংলাদেশ কিছু চিত্তাকর্ষক অগ্রগতি করেছে। যেমন গার্মেন্টস খাত সবুজ কারখানার সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বের সেরাদের মধ্যে রয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের অবশ্যই বাংলাদেশের শক্তি দক্ষতা এবং সংরক্ষণ মাস্টার প্ল্যানের রূপরেখার পথে চলতে হবে, যার মধ্যে বৃহৎ শিল্প শক্তি গ্রাহক, আবাসিক গ্রাহক, বিল্ডিং, বেসরকারি কোম্পানি এবং সরকারি সংস্থাগুলোকে শক্তি দক্ষতার দিকে অগ্রসর হতে সাহায্য করার জন্য একটি সিরিজের প্রোগ্রাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

সম্মেলনে বাংলাদেশ ও ভুটানের বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর আবদৌলায়ে সেক বলেন, পরিবেশ ও জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলা করতে এবং এর শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি কর্মক্ষমতা ধরে রাখতে বাংলাদেশকে আরও অনেক কিছু করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের তীব্রতা ও ফ্রিকোয়েন্সি বৃদ্ধির কারণে জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।

আবদৌলায়ে বলেন, সবুজ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশকে জলবায়ু ঝুঁকির বিরুদ্ধে দীর্ঘমেয়াদী স্থিতিস্থাপকতা গড়ে তুলতে সাহায্য করতে পারে এবং উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করতে পারে।

সম্মেলনে বিআইজিডির নির্বাহী পরিচালক ইমরান মতিন বলেন, আমরা সত্যিকার অর্থে সবুজ বৃদ্ধির এজেন্ডাকে গুরুত্ব দেব।

সবুজ প্রবৃদ্ধির এজেন্ডা কীভাবে প্রবৃদ্ধি প্রদান করে এবং সবুজ বৃদ্ধিকে বোঝার জন্য আন্তঃবিভাগীয় পদ্ধতির গুরুত্ব সম্পর্কে চিন্তা না করে অগ্রসর হতে পারে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ
© All rights reserved © janashokti

Developer Design Host BD