শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৬ অপরাহ্ন

মানিকগঞ্জ-২ আসনে নৌকা কার!

জনশক্তি ডেক্স:
  • আপডেট সময়: শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২৩ ১১:৩৫ am

জ‌সিম উ‌দ্দিন সরকার,মা‌নিকগঞ্জ: সময় যত এগিয়ে আসছে, মানিকগঞ্জ-২ আসনের নৌকার সমর্থকদের মাঝে ততই যেন উৎকণ্ঠা বাড়ছে, কে পেতে যাচ্ছে নৌকা। ইতিমধ্যে নৌকার চূড়ান্ত মাঝির নাম ঘোষণা শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ৭২ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে। যে কোন সময় ঘোষণা আসতে পারে ঢাকা বিভাগের।

আগামী ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন, সিংগাইর,হরিরামপুর ও সদর উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে মানিকগঞ্জ-২ আসন। এখানে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী দেশের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম (এমপি), কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক দেওয়ান সফিউল আরেফিন টুটুল, জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ শিল্পপতি দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলু, সিঙ্গাইর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান খান হান্নান, হরিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেওয়ান সাইদুর রহমানসহ ১২ জন।

মমতাজ বেগম ২০০৮ সালে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য এবং ২০১৪ ও ২০১৮ সালে নির্বাচিত এমপি। সাম্প্রতি এক সমাবেশে তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, নৌকার ফের তার হাতেই আসতে যাচ্ছে। কেন্দ্র থেকে সেই রকম নির্দেশেনা দিয়েই তাকে এলাকার বিভিন্ন সাংগঠনিক কাজের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। চষে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনী এলাকা। সভা-সমাবেশে নৌকা মার্কায় ভোট প্রার্থনার পাশাপাশি দোয়া চাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তার দৃঢ বিশ্বাস তিনিই ফের নৌকার মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন।

এদিকে, আলোচনায় রয়েছেন আপন দুই চাচাত ভাই, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক দেওয়ান সফিউল আরেফিন টুটুল এবং মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলু।

দেওয়ান সফিউল আরেফিন টুটুল গত ২০০১ সালের নির্বাচনে নৌকার টিকেট নিয়ে লড়েছিলেন, তখন তিনি বিএনপির কাছে পরাজিত হন। এরপর নির্বাচনী মাঠে বেশ কয়েকবার দেখা গেলেও দল থেকে মনোনয়ন পাননি। এবার তিনিও আসনটিতে গণসংযোগ করেছেন, তারও আশা এবার তিনি নৌকা পাবেন।

অন্যদিকে আলোচনায় রয়েছেন দেওয়ান সফিউল আরেফিনের চাচাতো ভাই জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলু। সিঙ্গাইরে তিনি দানবীর হিসেবে পরিচিত। মানিকগঞ্জ-২ আসনের এমন কোনো সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নেই যেখানে তিনি আর্থিক সহযোগিতা করেননি। দানবীর খ্যাত এই মানুষটিও এবার নৌকার মাঝি হতে জোড় তদবির করছেন।

এছাড়াও আলোচনায় রয়েছেন মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সিংগাইর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান খান হান্নান, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এবং হরিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেওয়ান সাইদুর রহমান। তারাও নৌকার মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ পাড়ছেন।

এছাড়া বাকি আরো ৭জন নৌকা প্রত্যাশী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। কিন্তু একজন পাবেন নৌকা, এনিয়ে চলছে আলোচনা সমালোচনা, সবার একটাই প্রশ্ন তবে কে হবে এই সংসদীয় আসটির নৌকার মাঝি। এখন অপেক্ষা শুধু সময়ের, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানিকগঞ্জ-২ আসনে কার মাথায় মুকুট পড়িয়ে দিবেন, সেটাই দেখার পালা।

নৌকা প্রত্যাশী বাকিরা হলেন, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও হাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মনির হোসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ও হরিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সাহাবুদ্দিন আহমেদ চঞ্চল, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক তারিকুর রহমান চৌধুরী (উইলটন), বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. তানভীর আহাম্মেদ, বাংলাদেশ হকার্স লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক জাকারিয়া হানিফ ও বাংলাদেশ আওয়ামী প্রজন্ম লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সারোয়ার আলম।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ
© All rights reserved © janashokti

Developer Design Host BD